নামটা একটু অদ্ভুত, জিন্দা পার্ক। অনেক শুনেছি এই পার্কের কথা, একদিন আমার ছোট ভাই বলল চলেন ঘুরে আসি জিন্দা পার্ক থেকে। দিন তারিখ ঠিক করে একদিন চলে গেলাম জিন্দা পার্কে।

ধানমন্ডি থেকে আমরা যাত্রা শুরু করেছিলাম। জিন্দা পার্কে প্রবেশ মুখে সাড়ি সাড়ি গাছ দেখতে পারবেন, যা দেখে আপনার মন ভরে যাবে। সকালের দিকে গেলে খুব সুন্দর ও ঠাণ্ডা একটা আবহাওয়া উপভোগ করতে পারবেন। ঢাকার পাশে এত মনোরম পরিবেশ পাওয়া আসলেই ভাল একটা ব্যপার। যদি মোটর বাইক নিয়ে আসেন তাহলে দ্রুতগতি ও হর্ন বাজানো থেকে বিরত থাকবেন। আপনারা চাইলে প্রাইভেট কার নিয়েও যেতে পারবেন।

আমরা সকালে যেয়ে গাছ পাকা কলা পেয়েছিলাম। এই এলাকার পেঁপেও ছিল। ওখানে ফুলও ছিল, প্রিয়জন কে সাথে নিয়ে গেলে কিনে দিতে পারেন। যাইহোক এবার জিন্দা পার্কে প্রবেশ করার পালা, টিকেটের মূল্য ছিল ১০০ টাকা। শিশুদের জন্য অর্ধেক আর যদি বাইরে থেকে খাবার নিয়ে প্রবেশ করতে চান তাহলে গুনতে হবে অতিরিক্ত ২৫ টাকা। গেট দিয়ে প্রবেশ করেই আপনার মনে হবে সবুজের কোন এলাকায় চলে এসেছেন।

জিন্দা পার্কে একটা হস্তশিল্পের একটা দোকানও আছে, চাইলে এখান থেকে আপনার পছন্দের জিনিস কিনতে পারেন। যখন হাঁটতে হাঁটতে ক্লান্ত হয়ে যাবেন, বসে বিশ্রাম নেওয়ার অনেক জায়গা পাবেন। অনেক সুন্দর একটা মসজিদ আছে জিন্দা পার্কের ভিতরে। আমরা যতই ভিতরে যাচ্ছিলাম ততই ভাল লাগছিল।

পার্কের ভিতরে খাবাবের জন্য রেস্তোরাঁ আছে, দুপুরের ভোজ এখান থেকে সেরে ফেলতে পারবেন। আমাদের সব থেকে যেটা দৃষ্টি আকর্ষণ করেছিল সেটা হচ্ছে একটা স্কুল। সত্যিই অসাধারণ একটা ভবন। বলে বোঝানো মুশকিল, নিজে না দেখলে বিশ্বাস করতে পারবেন না। শুধু স্কুল না আছে ভিন্ন রকমের একটা বিশাল লাইব্রেরি।

যদিও আমরা ভিতরে ঢুকতে পারিনি, শুক্রবার হওয়ায় বন্ধ ছিল। তারপরও বাইরে থেকে দেখে খুবই ভাল লেগেছে। প্রায় ২৫ হাজারেরও বেশি বিভিন্ন রকমের গাছ পালা রয়েছে এই জিন্দা পার্কে।

শুটিং এর জন্য ভাল একটা স্পট এটা। 

Similar Posts

4 Comments

  1. so nice bro i am a bangladeshi i live in saudi arab its nice place

  2. Good article

  3. nice

  4. The park is really beautiful. It is all natural feeling that makes you feel much cooler. Every corner of the park is well maintained and naturally furnished. I really love its architecture especially from its school in this place. It is unique, natural and beautiful. You can have lunch there. And it is not allowed to bring food outdoors. If you need a one-day snack, you should visit this place.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *