আচ্ছা!!

পাহাড়ে যারা থাকে তারা পানি পায় ক্যামনে(কিভাবে) এতো উপরে? এইটাও বাদ দিলাম, বাংলাদেশের পাহাড়ে ত বরফ নেই, তাহলে পোলাপান যে পাহাড়ে ঘুরতে গেলে ঝর্নায় গোসল করে আবার ফেসবুকে ছবিও দেয়,এই ঝর্ণায় পানি আসে ক্যামনে-ম্যান(কিভাবে সম্ভব)!! আসলে এত চিন্তা না করে বান্দরবন ঠিকমত ঘুরলেই সব answer(উত্তর) পেয়ে যাবেন।

রুমা; বান্দরবান গেলে সব থেকে বেশি শুনবেন এই নাম টা। কিন্তু রুমায় আছেটা কি?

আসলে রুমা একটা উপজেলা আর রুমা বাজার থেকেই গাইড নিয়ে বান্দরবনের সব অ্যাডভেঞ্চারাস(রোমাঞ্চকর) টুরিস্ট স্পটগুলোতে যেতে হয়। মায়াবী সেই লেকের কথা না বলে হুদাই(শুধু) পক পক করছি। 

২৭০০ ফুট উপরে পাহাড় আর গাছপালার সবুজে ভরা বিশাল এক লেক। স্থানীয়রা বলে এই লেকের নিচে নাকি এখনো একটি ড্রাগন ঘুমিয়ে আছে। এই ড্রাগনের কল্পকাহিনী থেকে এই লেকের নাম বগালেক(বগা মানে ড্রাগন)। কিন্তু বিশেষ ভাবে অজ্ঞদের (বিশেষজ্ঞ)মতে, মৃত আগ্নেয়গিরির জালা মুখে এই লেকের সৃষ্টি।

এই লেকের পানির রঙও আবার এক এক সময় এক এক রকম। সকালে সবুজ পাহাড়ের ছায়ায় পানির রঙ হয়ে ওঠে সবুজ। রোদ বাড়ার সাথে সাথে আকাশের নীল মিশে পানির রঙ হয় নীলাভ-সবুজ।

আর রাতের বগালেক যেন এক নৈসর্গিক দৃশ্য। এর সাথে আরো যদি হয় পুর্নিমার রাত তাহলে তো কথায় নেই;রুপালী পানি, চারিদিকের নিস্তব্দতা আর ঝিঝি পোকার ডাক পরিবেশটাকে করে তোলে সেইইইইই রোমাঞ্চকর।

 

এত সুন্দর পানি দেখে কার না চাই এই লেকে গোসল করতে!! আর তাই সাতার না জানলেও পানিতে নেমে গোসল করেন প্রায় সবাই। এখানে গোসলের একটা সুবিধাও আছে। ফ্রি তে পেয়ে যাবেন ফিশ পেডিকিউর। বুঝেন নাই বেপার টা?? মানে হচ্ছে লেকের পানিতে থাকা ছোট মাছগুলো এসে আপনার গায়ের পায়ের মরা চামড়াগুলো খেতে থাকবে এবং আপনার গায়ে সুসসুড়ি অনুভূত হবে। সুতরাং বুঝতেই পারছেন পানিতে নামার আগে কোন জায়গাগুলো ভাল মত ঢেকে নামতে হবে 😛 ।

প্রকৃতির সাথে মিশে রাত কাটানোর জন্য সবচেয়ে ভাল জায়গার একটি এই বগালেক। লেকের পাশের বাসিন্দারা ঠিক লেকের পানির উপরেই কতগুলো মাচাঘর করে রেখেছে যেগুলো পর্যটকদেরকে ভাড়াদেন। এই ঘরগুলোতে রাত কাটানোই হল সবচেয়ে রোমাঞ্চকর।

এক রাত থাকলেই আপনি মোটামুটি উপভোগ করতে পারবেন এই মায়াবী লেকের সবকিছুই। পরেরদিন সবাই চলে যায় কেওক্রাডং ঘুরতে। এই কেওক্রাডং আবার আর এক আডভেঞ্চার, যদি আপনি যান পায়ে হেটে। এই গল্পটা জানতে হলে তো আপনাকে পরের গল্পটা পড়তে হবে ভায়াআআআ।

 

কিভাবে যাবেন?

ভাই আপনি চাইলে কারো কলে উঠে, নিজের পায়ের উপর ভরসা রেখে অথবা অন্য কোন এক্সপার্ট বন্ধুর কথায় ভরসা করে যেতে পারেন। আর আপনি কি ভাবছেন আমি এইখানে পুরো বর্ণনা দেব? না না ভাইয়া…দিতাম বাট ঐটা আবার আপনকে একটু খুজে নেওয়ার জন্য বললাম আর কি। বান্দরবন-রুমা-বগালেক, এইভবে গেলেই হবে।

 

বিশেষ দ্রষ্টব্যঃ

দয়া করে জায়গাটা পলিথিন,প্যাকেট বা অন্য কিছু ফেলে নষ্ট করবেন না। বাকি সবকিছু আপনারা সচেতন নাগরিক হিসাবে করবেন।

Similar Posts

7 Comments

  1. Awesome post learned a lot thanx!

  2. Thank you so much for this..nice article

  3. this is amazing i love it thtank you

  4. nice article

  5. nice article thank you dear

  6. nice article

  7. thank you dear this good article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *